ভোটার তথা জনগণের তথ্য অধিকার রহিতের অপচেষ্টায় উদ্বিগ্ন সুজন

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের ব্যক্তিগত তথ্য, বিশেষ করে সম্পদের বিবরণী জনসমক্ষে প্রকাশের ব্যাপারে সম্প্রতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আপত্তি করেছে। এ আপত্তি আমলে নিয়ে নির্বাচন কমিশন এখন সম্পদের বিবরণী প্রকাশ বন্ধ করার জন্য আইনের ফাঁকফোকর খুঁজছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এই ধরনের সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। জনগণের তথ্য অধিকার রহিতের এ অপচেষ্টার সংবাদে ‘সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক’-এর পক্ষ থেকে আমরা ক্ষুব্ধ ও উদ্বিগ্ন।
দীর্ঘদিনের আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির এ অধিকার অর্জিত হয়েছে। এর ফলে জনগণ প্রার্থী সম্পর্কে জেনে, শুনে ও বুঝে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করতে পারছে। জনপ্রতিনিধিদেরকে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার চর্চায় উদ্বুদ্ধ করাও এ প্রচেষ্টার একটি গুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্য ছিল। এ প্রক্রিয়ায় জনপ্রতিনিধিগণ জনগণের আশা-আকাক্সক্ষা পূরণে দায়বদ্ধতার চর্চায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হচ্ছে। তাই গণতান্ত্রিক চর্চাকে সমুন্নত রাখতে এ চর্চা অব্যাহত রাখতে হবে।
হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী, প্রার্থীদের পেশা ও সম্পদের বিবরণীসহ আট ধরনের তথ্য সর্বসাধারণের জানার জন্য তা প্রকাশ ও প্রচারের ব্যবস্থা করাকে আদালত নাগরিকের বাক স্বাধীনতা তথা মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। আদালতের রায়ের পর গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন করে বিষয়টি এতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এতে কোনো প্রার্থী হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দিলে তাঁর প্রার্থীতা বাতিল হবার বিধান করা হয়। এ ক্ষেত্রে হাইকোর্ট ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের একটি রায়ের উদাহরণ দেন। ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ে রায়ে বলা হয়, ভোটাররা প্রার্থীদের অতীত ইতিহাস না জানলে নির্বাচন প্রহসনে পরিণত হবে, ভোটারদের ভোট দেওয়া অর্থহীন হবে।
আমাদের আশঙ্কা, প্রার্থীদের হলফনামা প্রকাশ বন্ধ হলে সমাজে দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদ অর্জনকে যেমন একদিকে উৎসাহিত করা হবে, অন্যদিকে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদেরকে নির্বাচনী মাঠ থেকে বিতাড়িত করা হবে। অথচ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সর্বস্তরে স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। দলটির দিনবদলের সনদেও দুই দুইবার তার স্পষ্ট উল্লেখ আছে।
জনগণ তথা ভোটাররা তাদের বাক স্বাধীনতা প্রয়োগ করেন ভোটের মাধ্যমে। আমরা আশা করছি, সরকার ও নির্বাচন কমিশন জনগণের এ মৌলিক অধিকার সমুন্নত রাখবেন এবং জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির এ অধিকারকে খর্ব করার সমস্ত অপচেষ্টা রোধে সচেষ্ট থাকবেন।

Sign of hafiz sirSign of sir

এম হাফিজউদ্দিন খান                                                                                                                                                                       ড. বদিউল আলম মজুমদার
সভাপতি                                                                                               সম্পাদক

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s